কি হতে চলেছে WBPSC Food Sub-Inspector পরীক্ষার ভবিষ্যৎ?


২৭ শে জানুয়ারী রবিবার রাজ্যজুড়ে ডব্লিউ বি পি এস সি ফুড সাব ইন্সপেক্টর এর পরীক্ষা আয়োজিত হয়েছিল এবং প্রত্যেক বারের মতন ভারতবর্ষের সবথেকে বেশি বেকারত্ব যুক্ত রাজ্য পশ্চিমবঙ্গে মাত্র ৯৫৭ টি সিটের জন্য ১১.৫ লক্ষ বেকার ছাত্র ছাত্রীরা পরীক্ষায় বসে ছিল।

কিন্তু রাজ্য সরকারের দ্বারা নেওয়া এই চাকরির পরীক্ষার চিরাচরিত রূপ কিন্তু এবারও অটুট থাকলো।এর কিছুদিন আগেই হত্তয়া ফায়ার ব্রিগেডের পরীক্ষা তে যেভাবে প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়েছিল ফুড সাব ইন্সপেক্টর এর এই পরীক্ষা তেও কিন্তু পরীক্ষা শুরু হওয়ার আগেই ফাঁস হয়ে গেল উত্তরপত্র। ফলে দূর-দূরান্ত থেকে এসে পরীক্ষার ঠিকমত প্রস্তুতি নিয়ে পরীক্ষা দেওয়ার কোন মানেই থাকেনা এই সকল বেকার ছাত্র ছাত্রীর।রাজ্যের বিভিন্ন কোন থেকে উঠে আসলো চিরকুট তথা মোবাইলের মধ্যে থাকা প্রশ্নপত্র এবং উত্তর । যা পরীক্ষা শুরু হওয়ার অনেক আগেই হাতে এসে গিয়েছিলো কিছু মুষ্টিমেয় ছেলে মেয়ের। যথারীতি ভাবেই এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল আদালতের দিকে মুখ করেছে।তাই এই নিয়ে কোনো সন্দেহই নেই যে বাকি আর পাঁচটা রাজ্য সরকারের পরীক্ষার মতন এই চাকরির পরীক্ষাও ভবিষ্যতের নামে আদালতের দরজার ভেতর এই থাকলো।

(WBPSC Food SI পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস ?)

অনেকের মতে এটি হলো রাজ্য সরকারের এক অভিনব পলিসি।সারা রাজ্য জুড়ে মোটামুটি ভাবে সাড়ে ১১ লক্ষ বেকার ছাত্র-ছাত্রী ১০০ টাকা প্রতি ফরম ফিলাপ করেছে এবং তার দ্বারা মোট এর যে অঙ্ক গিয়ে দাঁড়ায় তা হল ১১ কোটি টাকা।অন্যদিকে যেহেতু এই ফাঁকা বা শূন্যস্থান গুলিতে নতুন করে ছাত্র-ছাত্রীদের নেওয়া হচ্ছে না তাই তাদের বেতন দেওয়ার কোনো চাপ ও নেই ।তাই খুব সহজেই প্রায় ১১ কোটি টাকার মতন একটা বিশাল অঙ্ক রাজ্য সরকার নিজের ঝুলিতে তুলে নেওয়ার সুযোগ করে নিয়েছে।এর প্রতিবাদ জানিয়ে রাজ্যের বিভিন্ন কোনায় বেকার ছাত্রছাত্রীরা কিন্তু অবরোধ থেকে শুরু করে আন্দোলন এবং ভাঙচুর করছে।ইতিহাসে স্বর্ণাক্ষরে লেখা পশ্চিমবঙ্গের নাম বর্তমানে কতটা নিচে গিয়েছে সেটি একটা বড় প্রশ্নের উদ্ভব ঘটায়।।

0 Shares

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.