ন্যায্য বেতনের দাবীতে শিক্ষামন্ত্রীর বাড়ির সামনে আমরণ অনশনে হাজারো শিক্ষক! বিস্তারিত জানুন 👇

পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে শিক্ষক নিয়োগ সংক্রান্ত এবং শিক্ষকদের বেতন কাঠামো নিয়ে এই সরকারের বিরুদ্ধে বহু অভিযোগ রয়েছে। এর আগেও বেতন সংক্রান্ত অভিযোগ নিয়ে রাজ্যের বহু শিক্ষকদের বহু বার প্রতিবাদে সরব হতে দেখা গিয়েছে। আর এবার মাত্র এই ৪৭০০ টাকা মাসিক বেতন এবং ঠিকাদারের বিভিন্ন অমানবিক চাপে আর কাজ করা এবং সংসার চালানো সম্ভব হচ্ছে না বহু শিক্ষকদের ।এই অভিযোগ নিয়ে আবার সরব হয়ে আন্দোলনে নামলেন রাজ্যের কয়েক হাজার কম্পিউটার শিক্ষক। যদি রাজ্য সরকার তাদের দাবি মেনে ন্যায্য বেতন কাঠামো না প্রদান করে, তাহলে তারা আমরণ অনশনের রাস্তায় হাঁটবেন এমন হুঁশিয়ারি আগেই রাজ্য সরকারকে দিয়েছিলেন রাজ্যের কয়েক হাজার কম্পিউটার শিক্ষক।

আর এবার সত্যিই তাঁরা তাদের কথা মত শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের নাকতলার বাড়ির সামনে আমরন অনশনে বসলেন! রাজ্যের কয়েক হাজার কম্পিউটার শিক্ষক শিক্ষিকা রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বাড়ির সামনে আজ অনশনে বসেছেন সকাল থেকে। তাঁদের অন্যতম অভিযোগ “প্রতি স্কুল পিছু আমাদের স্যালারি এবং কোন্টিজেন্সি খরচ বাবদ ৩,১৯,১৫৬/- টাকা সরকার দেয়। কিন্তু আমরা ১২ মাস শুধু ৪৭০০ করে পাই। আমরা বোনাস ও পাই না।” কমপিউটার শিক্ষকদের আরও অভিযোগ তাঁরা অনেক বার P.M Centralized Public Grievance Redress and Monitoring System এ অনলাইনে কমপ্লেইন করার পর, অনলাইনে সেন্ট্রাল হেল্প পাওয়ার পরও “পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকার তার উপরে কোনো অ্যাকশন নেয় নি।”

কম্পিউটার শিক্ষকদের মূল দাবিগুলি হল:-
১. পশ্চিমবঙ্গে স্কুলে স্কুলে কম্পিউটার শিক্ষাকে অবিলম্বে অন্তর্ভুক্ত করতে হবে।
২. শিক্ষার ক্ষেত্রে ঠিকাদারি প্রথা বাতিল করে, সরকারীকরণ করতে হবে।
৩. ন্যায্য এবং উপযুক্ত বেতনের ব্যবস্থা করতে হবে।

Join Our WhatsApp GroupWhatsApp-Logo Click here.png

এই রকম আরও বিভিন্ন নিউজ সম্বন্ধে জানতে আমাদের ফেসবুক পেইজটি লাইক করে রাখুন। Netdarpan এর ফেসবুক পেইজ লাইক করার সাথে সাথে আমাদের ওয়েবসাইট কে Subscribe করে রাখুন সকল নিউজ তৎক্ষণাৎ আপনার কাছে পৌঁছে যাওয়ার জন্য।। এতে পশ্চিমবঙ্গ , ভারতবর্ষ এবং সারা বিশ্বের বিভিন্ন কোনায় ঘটে ধাকা বিভিন্ন রকমের খবর সম্বন্ধে আপনারা বিস্তারিতভাবে সম্পূর্ণভাবে আপডেটেড থাকতে পারবেন। ধন্যবাদ।।

0 Shares

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.