অভিনন্দনের মুক্তি: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিদেশ যাত্রার সুফল পেল ভারত!! বিস্তারিত জানুন 👇


বৃহস্পতিবার দুপুরেই মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ভিয়েতনামের হ্যানয়ে বসে ইঙ্গিত দিয়ে বলেছিলেন, ভারত-পাক থেকে সুসংবাদ পেতে চলেছি। আমরা মাঝে থেকে দু’পক্ষকেই থামানোর চেষ্টা করছি। আন্তর্জাতিক কূটনীতিক থেকে শুরু করে ঘরোয়া রাজনীতির অনেকেই তখন আঁচ করতে পারছিলেন, কী হতে চলেছে ভবিষ্যতে।

তবে খুব বেশি সময় অপেক্ষা করতে হল না। ট্রাম্পের সেই মন্তব্যের ঘণ্টা কয়েকের মধ্যেই ভারতীয় বায়ুসেনার উইং কম্যান্ডার অভিনন্দন ভর্তমানকে মুক্তি দেওয়ার সিদ্ধান্ত ঘোষণা করে দিল পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। পাক সংসদে দাঁড়িয়ে তিনি বললেন, “শান্তির বার্তা দিতেই ভারতীয় পাইলটকে ফেরত দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি আমরা।” যে ঘটনাকে নয়াদিল্লির বড় কূটনৈতিক সাফল্য বলেই মনে করা হচ্ছে।ভারতের সাথে বাকি বিদেশী দেশ গুলোর সুসম্পর্কের জেরেই পাকিস্তান চাপে পড়ে গেছিল। তাদের কাছে পাইলট অভিনন্দনকে Geneva Convention মেনে ছাড়ার জন্য বিভিন্ন জায়গা থেকে বলা হচ্ছিল বলে জানা গেছে। এতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিদেশ যাত্রা গুলোর সুফল বলেই অভিজ্ঞ মহলের মত।

কারণ, যতটা সহজ করে ইমরান এ দিন পাক সংসদে অভিনন্দনের মুক্তির কথা ঘোষণা করেন, ব্যাপারটা যে অত সহজে ইসলামাবাদ মানেনি, তা কূটনৈতিক বৃত্তে স্পষ্ট। বুধবার সন্ধ্যায় নয়াদিল্লি স্থিত পাক ডেপুটি হাইকমিশনারকে ডেকে পাঠানো হয়েছিল বিদেশ মন্ত্রকে। তাঁর হাতে একটি ডিমার্শে ধরিয়ে নয়াদিল্লি স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছিল, এক: ভারতীয় পাইলটের উপরে কোনও শারীরিক অত্যাচার করা চলবে না। জেনেভা কনভেশন মেনে তাঁর সঙ্গে মর্যাদাপূর্ণ ব্যবহার করতে হবে। এবং অবিলম্বে তাঁকে নিরাপদে ভারতে ফেরাতে হবে। দুই: পাকিস্তানের মাটিতে থাকা জঙ্গি শিবিরগুলিকে ধ্বংস করতে হবে ইসলামাবাদকে।

পাক ডেপুটি হাই কমিশনারকে যখন এই বার্তা দেওয়া হচ্ছে, তার আগেই আন্তর্জাতিক স্তরে প্রবল কূটনৈতিক দৌত্যে নেমে পড়ে ভারত। আমেরিকা, ব্রিটেন, রাশিয়া, চিন ও ফ্রান্সের ভারতীয় রাষ্ট্রদূতদের সঙ্গে কথা বলেন বিদেশ সচিব বিজয় গোখেল। নয়াদিল্লি তরফে তাদের স্পষ্ট জানানো হয়, ভারতীয় পাইলটের মুক্তির জন্য তাদেরও চাপ বাড়াতে হবে ইসলামাবাদের উপর। কারণ, পাকিস্তানের মাটিতে জঙ্গি শিবির ধ্বংসের আক্রমণ শানিয়েছিল ভারত। নয়াদিল্লির তরফে এর চেয়ে বেশি কোনও আগ্রাসী মনোভাব ছিল না। পাকিস্তান জঙ্গিদের পক্ষ নিয়ে সামরিক জবাব দিতে চেয়েছে ভারতকে। যা অভিপ্রেত নয়। সুতরাং ভারতীয় পাইলটের মুক্তি জন্য শক্তিধর রাষ্ট্রগুলির তরফে সমস্বরে চাপ বাড়াতে হবে পাকিস্তানের উপর।

বস্তুত, পুলওয়ামার ঘটনার পর থেকেই এই পাঁচ দেশের সঙ্গে কূটনৈতিক চ্যানেলে প্রতি মুহূর্তে যোগাযোগ রেখে চলেছে ভারত। তার ফল স্বরূপ বৃহস্পতিবার আরও একটি বড় সাফল্য পায় নয়াদিল্লি। আমেরিকা, ব্রিটেন ও ফ্রান্স রাষ্ট্রপুঞ্জের নিরাপত্তা পরিষদে প্রস্তাব পেশ করে দাবি করে, জইশ-ই-মহম্মদ চিফ মাসুদ আজহারকে আন্তর্জাতিক জঙ্গি বলে ঘোষণা করতে হবে।

সাউথ ব্লক সূত্রে বলা হচ্ছে, সার্বিক এই পরিস্থিতিতে প্রবল চাপে পড়ে যায় ইসলামাবাদ। কিন্তু তার পরেও তারা প্রস্তাব দেয়, শর্ত সাপেক্ষে ভারতীয় পাইলটকে মুক্তি দিতে তারা প্রস্তুত। সেই শর্ত হল, সংঘর্ষ বিরতি ঘোষণা করতে হবে ভারতকে। সেই সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক আলোচনার টেবিলে আসতে হবে ভারতকে।কিন্তু বিনা বাক্যব্যয়ে সেই প্রস্তাব ফিরিয়ে দেয় ভারত। স্পষ্ট জানিয়ে দেয়, কোনও দরকষাকষি এক্ষেত্রে বরদাস্ত করা হবে না। নিঃশর্তে ভারতীয় পাইলটকে মুক্তি দিতে হবে। সেই সঙ্গে পাকিস্তানের মাটিতে থাকা জঙ্গি শিবিরগুলির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে ইসলামাবাদকে। পাকিস্তান সন্ত্রাসদমনে বিশ্বাসযোগ্য পদক্ষেপ না করলে দ্বিপাক্ষিক আলোচনার প্রশ্নই ওঠে না।

অভিজ্ঞ মহলের বক্তব্য সন্দেহ নেই, পাকিস্তানের মাটিতে জঙ্গি শিবির ভাঙার দম ইমরানের নেই। পাকিস্তান সেনা, পাক গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআই-য়ের মদতেই সে দেশে কট্টর মৌলবাদীরা ফুলে ফেঁপে বেড়েছে। ফলে আপাতত উত্তেজনা প্রশমন করতে ভারতীয় পাইলটকে অবিলম্বে মুক্তি দিতে রাজি হয়ে যায় ইসলামাবাদ। বিকেলেই ইমরান খান তা পাক সংসদে ঘোষণা করে।তবে সাউথ ব্লক বলছে, এটুকু কূটনৈতিক সাফল্যেই সন্তুষ্ট নয় ভারত। পাক প্রশাসনকে সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে বিশ্বাসযোগ্য পদক্ষেপ করতেই হবে। তার আগে বিশ্রাম নেওয়ার প্রশ্নই নেই।

Join Our WhatsApp GroupWhatsApp-Logo Click here.png

এই রকম আরও বিভিন্ন নিউজ সম্বন্ধে জানতে আমাদের ফেসবুক পেইজটি লাইক করে রাখুন। Netdarpan এর ফেসবুক পেইজ লাইক করার সাথে সাথে আমাদের ওয়েবসাইট কে Subscribe করে রাখুন সকল নিউজ তৎক্ষণাৎ আপনার কাছে পৌঁছে যাওয়ার জন্য।। এতে পশ্চিমবঙ্গ , ভারতবর্ষ এবং সারা বিশ্বের বিভিন্ন কোনায় ঘটে ধাকা বিভিন্ন রকমের খবর সম্বন্ধে আপনারা বিস্তারিতভাবে সম্পূর্ণভাবে আপডেটেড থাকতে পারবেন। ধন্যবাদ।।

0 Shares

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.