“ভোট চুরি থেকে পুলওয়ামা আক্রমণ সবকিছুর পেছনেই মোদীর হাত রয়েছে” বললেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়!!

নেটদর্পণ ব্যুরো: আগামী মাসের প্রথম সপ্তাহেই ঘোষিত হতে পারে নির্বাচনী নির্ঘণ্ট।এবং তা নিয়ে টানটান উত্তেজনা রয়েছে সে সকল ভারতবাসীর মধ্যে। তার আগে সম্ভবত শেষবার আজ, সোমবার দলের রাজ্য ও জেলা নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে মিলিত হলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ আজ, দুপুর ১২নাগাদ সভা শুরু হওয়ার কথা থাকলেও অসুস্থতার কারণে একঘণ্টা দেরিতে নজরুল মঞ্চে ওঠানে মমতা৷ আসতে দেরি হওয়ার জন্য ক্ষমাও চেয়ে নেন মমতা৷ এদিন শুরুতেই দলীয় কর্মীদের বার্তা দিতে গিয়ে বিজেপিকে কাঠগড়ায় তোলেন মমতা৷

এদিন পুলওয়ামাকাণ্ডের প্রসঙ্গ তুলে ধরে মোদি-শাহকে আক্রমণ করেন মমতা৷ বলেন,‘‘পুলওয়ামা ঘটনা যে ঘটন তা আগেই জানতেন মোদি৷ মোদির কাছে আগেই রিপোর্ট ছিল৷ তাহলে কেন ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি৷ না তল্লাশি, না নাকাচেকিং, জওয়ানদের কনভয় পাঠিয়ে দেওয়া হল৷ কেন জওয়ানদের এয়ারলিফ্টিং করা হল না৷ আজ, রাজনীতির জন্য জওয়ানদের মৃত্যুর মুখে ঠেলে ফেলে দেওয়া হল৷ আর যাই হোক, জওয়ানদের রক্ত দিয়ে ভোটে জেতা যায় না৷ মোদির জমানাতে এত বড় ঘটনা ঘটে গেল৷ হামলার পর কোথায় ছিলেন মোদি?

লোকসভা নির্বাচনে ভোট চুরি করতে পারে বিজেপি৷ সোমবার কোর কমিটির বৈঠক থেকে এই আশঙ্কাও প্রকাশ করেন মমতা৷অন্যদিকে এই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তৃণমূল সরকারের জোর জুলুম করে পঞ্চায়েত ভোট নেওয়ার উদাহরণ পশ্চিমবঙ্গ তথা সকল দেশবাসী বেশ ভালোভাবেই অবগত রয়েছে। তা সত্ত্বেও জোর গলায় বিজেপির ভোট চুরি করবার কথা তোলেন তিনি। ভোট চুরি রুখতে দলীয় কর্মীদের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হবে বলেও জানান নেত্রী৷ তৃণমূলের সরদ দপ্তরে জেলা কর্মীদের ভিভিপ্যাট ও ভোটে কারচুপি রুখতে প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে বলেও জানান মমতা৷ বলেন,‘‘যাঁরা ভোট চুরি করতে আসবে, তাঁদেরই উল্টে দেব৷”

এদিন তৃণমূল নেতা-কর্মীদের সাফ জানিয়ে দেন, ‘‘বাংলায় অনেক কাজ হয়েছে৷ এবার লোকসভায় ফসল ঘরে তুলে হবে৷’’‘ফসল’ তোলার জন্য কর্মীদের আরও বেশি করে সক্রিয় হওয়ারও বার্তাদেন তিনি৷ বলেন, ‘‘আগামীদিনে দেশকে পথ দেখাবে বাংলা৷ বাংলা অনেক এগিয়ে গিয়েছে৷ আরও এগিয়ে যাবে৷ আমরা চাই বাংলার অধিকার৷’’ বলেন,‘‘দেশ আজ বিপন্ন৷ গত পাঁচ বছরে বিপর্যস্ত দেশ৷’’বিজেপিকে উগ্র-বিদ্বেষী দল বলেও কটাক্ষ করেন তিনি৷ ভোটের আগে বিজেপি টাকা ছড়াচ্ছে বলেও জানান তিনি৷ এই জন্য পুলিশকে অভিযোগ করতেও নির্দেশ দেন তিনি৷ বলেন,‘‘ভোটে টাকা ছড়ানো যায়নি৷ এমন অভিযোগ পেলে পুলিশকে জানান৷ পুলিশ ব্যবস্থা না নিলে আমার বাড়িতে চিঠি পাঠিয়ে জানান৷’’এদিন দেশের আইন-শৃঙ্খলা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন তিনি৷ দেশের গণতন্ত্র ধ্বংস হয়ে গিয়েছে বলেও জানান তিনি৷ এদিন বাম-কংগ্রেসকে নিশানা করে মমতা বলেন,‘‘সিপিএম কী করবে, কংগ্রেস কী করবে ভাবতে হবে না৷ সিপিএম কংগ্রেস এখন ভাই ভাই৷ আমরা আমাদের মতো লড়াই করব৷’’এদিন কেন্দ্রে মোদি-শাহকে আক্রমণ করে মমতা সাফ জানিয়ে দেন, ‘‘আমরা আমরা ইঞ্চিতে ইঞ্চিতে জবা দেব৷” গত ছয় মাসে জাতীয় রাজনীতিতে মমতা কেন্দ্রিক বিরোধী ঐক্য নতুন মাত্রা জুড়েছে। নিজের রাজ্যে তৃণমূলের একচ্ছত্র আধিপত্য মমতার দিল্লি অভিমুখী রাজনীতির পথ মসৃণ করবে। রাজনৈতিক মহলের ধারণা, ভোটের আগে কোর কমিটির এই বৈঠকে দলীয় সংগঠনকে সেই নির্বাচনী রণকৌশলেরই বার্তা দেন দলনেত্রী। এদিনের বৈঠকেও এ রাজ্যে ৪২টি আসনের মধ্যে ৪২টিই দখলে আনতে হবে বলেও জানান তিনি৷

এমন ভাবেই দেশ-বিদেশ , পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন রকমের খবর সম্বন্ধে নিজেদেরকে আপডেটেড রাখবার জন্য ফেসবুক পেজকে লাইক করুন এবং ওয়েবসাইটকে সাবস্ক্রাইব করুন ।ধন্যবাদ।।

0 Shares

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.