Mid Day Meal -এর খাবার শিক্ষার্থীদের খেতে না দিয়ে ফেলে দেওয়ার অভিযোগ!!

পুরুলিয়ায় : পুরুলিয়া জেলার রঘুনাথপুর থানার অন্তর্গত মৌতড় বালক প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মিড ডে মিলের খাবার শিক্ষার্থীদের না দিয়ে তা ফেলে দেওয়ার অভিযোগে গ্রামবাসীদের একাংশ ওই বিদ্যালয়ের গেটে তালা লাগিয়ে বিক্ষোভ দেখালো শুক্রবার। দুপুর বারোটা থেকে বিকেল সাড়ে চারটে পর্যন্ত তালা বন্দি হয়ে থাকতে হল ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সহ অন্যান্য সহকারী শিক্ষক- শিক্ষিকাদের। পরে বিকেল সাড়ে চারটে নাগাদ পুলিশ এসে তাদের কে উদ্ধার করে সেখান থেকে। অবশ্য পুলিশকেও গ্রামবাসী মহিলাদের বিক্ষোভের মুখে পড়তে হয়।


বিক্ষোভকারীরা বলেন, আমাদের মৌতড় বালক প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা বীণা বাউরি নিজের ইচ্ছে মত ছাত্রদের জন্য মিড ডে মিল রান্না করান। খাবারের মান খুবই নিম্ন মানের হয়ে থাকে। ডিম দেওয়া তো হয়ই না, তাছাড়া রান্নায় তেল, হলুদ, মশলা দেওয়া হয়না বললেই চলে। এর আগেও আমরা বহু বার অভিযোগ করেছি এই নিয়ে, কিন্তু কোনো পরিবর্তনই আসেনি। তাই আজ আমারা বিদ্যালয়ের গেটে তালা লাগিয়ে বিক্ষোভ করতে বাধ্য হয়েছি। তারা আরও বলেন, এমনিতেই রান্নার মান খারাপ। এর মধ্যে এদিন আবার ছাত্রদের জন্য রান্না করা ভাত ডাস্টবিনে ফেলে দেওয়া হয়েছে। এমনকি গ্রামবাসীরা আগে প্রধান শিক্ষিকাকে অনুরোধও করেছিলেন যে, ভাত যাতে ফেলে দেওয়া না হয় প্রয়োজনে ছাত্রদের দিয়ে দিতে তাদের ছোটো ভাই বোনদের খাওয়াবে বাড়িতে এনে। এর পাশাপাশি তারা আরও অভিযোগ করেন যে, এই বিদ্যালয়ে সরস্বতী পূজা পর্যন্ত করা হয়না।


complaints-of-throwing-mid-day-meal-food-without-serving 1.jpg

গ্রামবাসীদের এই অভিযোগে সীলমোহর দিয়ে এদিন ওই বিদ্যালয়ের দুই রাধুনী বলেন, এই বিদ্যালয়ে মোট ছাত্র সংখ্যা 45। কিন্তু বাস্তবে কোনদিনও পনেরো থেকে কুড়ি জন ছাত্র বেশি আসে না বিদ্যালয়ে। এদিনও বিদ্যালয় 13 জন ছাত্র এসেছিল। তাই ওদের জন্য রান্না করা হয় কিন্তু মাত্র 6 জন ছাত্র ঐদিন খাবার খেয়েছে। এরকম ঘটনা আমরা প্রায়ই দেখি। ওই বিদ্যালয়ের অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষিকা বিনা বাউরি বলেন, মূলত গ্রামবাসীদের রাগ ছিল বিদ্যালয়ে সরস্বতী পূজা অনুষ্ঠিত না করার জন্য। সেই জন্যই গ্রামবাসীরা এসব অভিযোগ করেছেন। তবে এর মধ্যে ডাস্টবিনে রান্না করা ভাত ফেলে দেওয়ার অভিযোগ স্বীকার করে নিয়ে তিনি বলেছেন, এ দিন বেশ কিছু ছাত্র খাবার না খাওয়ার জন্য খাবার বেঁচে গিয়েছিল। তাই সেই খাবার ফেলে দেওয়া হয়েছিল ।এদিকে ঘটনার খবর পেয়ে রঘুনাথপুর 2 নম্বর ব্লকের বিডিও বলেন, ঘটনার তদন্ত করতে এসআইকে ওই ওই বিদ্যালয়ে পাঠানো হয়েছে।

এই রকম আরও বিভিন্ন নিউজ সম্বন্ধে জানতে আমাদের ফেসবুক পেইজটি লাইক করে রাখুন। Netdarpan এর ফেসবুক পেইজ লাইক করার সাথে সাথে আমাদের ওয়েবসাইট কে Subscribe করে রাখুন সকল নিউজ তৎক্ষণাৎ আপনার কাছে পৌঁছে যাওয়ার জন্য।। এতে পশ্চিমবঙ্গ , ভারতবর্ষ এবং সারা বিশ্বের বিভিন্ন কোনায় ঘটে ধাকা বিভিন্ন রকমের খবর সম্বন্ধে আপনারা বিস্তারিতভাবে সম্পূর্ণভাবে আপডেটেড থাকতে পারবেন। ধন্যবাদ।।

0 Shares

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.